৬৭+ সেরা বাংলা ফানি স্ট্যাটাস | 67+ Bangla Funny status & sms

 হ্যালো বন্ধুরা, আমাদের ওয়েবসাইট StatusCave-এ আপনাদের স্বাগতম।


আপনি কি​ নতুন Bangla Funny Status খুঁজছেন। তাহলে আপনি একদম সঠিক জায়গায় এসেছেন। আমাদের এই পোস্টে আপনি বাছাই করা সেরা bangla funny status দেখতে পাবেন।


আপনি এই Bangla Funny Sms গুলিকে খুব সহজেই কপি অথবা ডাউনলোড করে আপনার সোসাইল মিডিয়া একাউন্টে শেয়ার করতে পারবেন।


সেরা ফানি স্ট্যাটাস



০১
বাবাঃ তাের ফোনের লক টা খুলে দে তাে।
আমিঃ Fingerprint টা ভুলে গেছি। 😁😁😁


Bangla Funny Statua 1
Bangla Funny Status


০২
কেউ ১০ বছর আগে মরতে চাইলে,
তাকে প্রতিদিন সিগারেট খেতে বলুন
আর কেউ যদি ৫ বছর আগে মরতে চায়,
তবে তাকে রোজ মদ খেতে বলুন
আর কেউ যদি প্রতিদিন মরতে চায়,
তাহলে তাকে ধরে বিয়ে দিয়ে দিন


০৩
হিমালয় থেকে নয়।
ওই দুর আকাশ থেকেও নয়।
সাত সমুদ্র ১৩ নদীর
ওপার থেকেও নয়।
এই হৃদয়ের গভীর থেকে বলছি,
ভীশন ঠান্ডা লাগতাছে! 😁😁😁


০৪
আমি চোর!
আমার বাপ চোর!
আমার দাদা চোর!
আমার নানা চোর!
আমার ১৪ গোষ্ঠী চোর!

আরে গাঁধা আস্তে পড়।
লোকে শুনলে তোমাকে পিটাবে!!😁😁😁


০৫
এই SMS টা..
যে পড়বা সে ১টা ছাগল
না পড়লে পাগল
Share করলে শিয়াল
না করলে বিড়াল
Forward করলে ইন্দুর
Reply করলে বান্দর।


০৬
শিক্ষকঃ হ্যাপি মানে কি?
ফার্স্ট বেঞ্চারঃ খুশি।
ব্যাক বেঞ্চারঃ নাহিদের এক্স - গার্লফ্রেন্ড।


০৭
অরে মন কথা শুন,
যাবি চলে বান্দর বনে,
বানরের মত সবাই ঝুলবি
নাকি বল?
ওরে বাঁচাও আমায়,
একটা বানর আমার পিছু নিয়েছে।

সেই বানরটা এসএমএস পরতেছে। 😆😆😆


০৮
(সন্টু বউয়ের সাথে বাজারে
হাত ধরাধরি করে ঘুরছিলাে।)
ঘন্টুঃ বাহ্ রে, ভাই বিয়ের এত বছর
পরেও এত ভালােবাসা!
সন্টুঃ ভালােবাসা না ভাই
হাত ছাড়লেই কোনাে না কোনাে
দোকানে ঢুকে যাচ্ছে।


০৯
কাছের পথ দূরের লাগে,
যদি সাথে কেউনা থাকে।
দুরের পথ অনেক কাছের লাগে,
যদি পিছনে একটা পাগলা কুত্তা থাকে। 😅😅😅


১০
স্যারঃ মন দিয়ে পরো, না হলো
পরীক্ষায় ফেল করবে।
ঘন্টুঃ সর্বনাশ এখন কি হবে?
স্যারঃ কি হইছে তাের?
ঘন্টুঃ আমি তো মন অনেক
আগেই একজনকে দিয়ে ফেলেছি।😂😂😂


১১
একটি মেয়ের ফোনে
ব্যাংক থেকে কল এলো,
ব্যাংক কর্মীঃ হ্যালো ম্যাডাম, আমি ব্যাংক থেকে বলছি
আপনার কি ক্রেডিট কার্ড প্রয়োজন,
মেয়েটিঃ না আমার বয়ফ্রেন্ড আছে।


১২
ডিয়ার মশা,
ডোন্ট কিস মি??
জোর করে ভালবাসা হয় না??


১৩
নামাজ পড়া ফরজ
এটা পোলাপানের মাথায় না থাকলেও,
বিয়ে করা ফরজ
এটা সবার মাথায় থাকে।


১৪
আচ্ছা ফায়ার সার্ভিসে মেয়েদের চাকরি হয় না কেন?
উত্তরঃ কারণ এরা আগুন জ্বালাতে পারে, নিভাতে পারেনা।


১৫
যেখানে ভালোলাগা,
সেখানেই ভালোবাসা।
যেখানে ভালোবাসা,
সেখানেই প্রেম।
যেখানে প্রেম,
সেখানেই ব্যাথা।
আর যেখানে ব্যাথা,
সেখানেই টাইগার বাম মলম।


১৬
নিউটন পড়তেন, মােমবাতির আলােয়।
ঈশ্বরচন্দ্র পড়তেন, ল্যাম্প পােষ্টের আলােয়৷
শেক্সপিয়ার পড়তেন, মশালের আলােয়।
প্রশ্ন হলাে তারা দিনের আলােয় করতােটা কি?


১৭
জন্ম মৃত্যু বিয়ে সবই
আল্লাহর হাতে।
মাঝখানে শুধু প্রেমটাই
শয়তানের হাতে।


১৮
আমিঃ আম্মু একটু টিভি দেখি?
আম্মুঃ দেখ কিন্তু চালু করিস না...🤣🤣🤣


১৯
মেয়েঃ তুমি আমার জীবনের সূর্য হবে?
ছেলেঃ অবশ্যয়!
মেয়েঃ তাহলে ৯৩ মিলিয়ন মাইল দূরে থাক।


২০
শুনেছি ভালােবাসার রাস্তায়
নাকি ভীষণ যন্ত্রণা থাকে!!
তাই ভাবছি ঐ রাস্তায়
একটা ঔষধের দোকান খুলবাে।


২১
শিক্ষকঃ আমরা মুরগী থেকে কি পাই?
ছাত্রঃ চিকেন ফ্রাই।
শিক্ষকঃ আর গরু থকে কি পাই?
ছাত্রঃ বাড়ীর কাজ। 😁😁😁


২২
রনি বলো তো, এলিয়েন কাকে বলে?
রনিঃ যে সবার পোস্টে হা হা রিয়েক্ট মারে!


২৩
শিক্ষকঃ বলত, পৃথিবীতে সবচেয়ে বুদ্ধিমান প্রাণী কোনটি?
ছাত্রঃ স্যার, গরু হচ্ছে সবচেয়ে বুদ্ধিমান প্রাণী।
শিক্ষকঃ কিভাবে?
ছাত্রঃ কারণ, অতি চালাকের গলায় দড়ি। 🤣🤣🤣


২৪
কালুঃ ভাই, একটা নতুন চিরুনি দিন তো।
পুরােনােটার একটা কাঁটা ভেঙে গেছে।
দোকানদারঃ একটা কাঁটা ভেঙে গছে বলে
আবার নতুন চিরুনি কিনবেন কেন?
ওতেই তো চুল আঁচড়ে নেওয়া যায়।
কালুঃ আরে না ভাই, ওটাই চিরুনির শেষ কাঁটা ছিল।


২৫
মেয়েঃ তুমি দেখছি গাঁজা খেয়ে খুব বাজে বকো আজকাল।
ছেলেঃ আরে ধুর,কে বলেছে এসব।
মেয়েঃ আচ্ছা বাদ দাও,বলো কী করছো?
ছেলেঃ এই তো টিভির উপর বসে সোফা দেখছি।
মেয়েঃ শালা গাঁজা খোর 🤣😂🤣


২৬
BF: আমি তোমার জন্য সব করতে পারি।
GF: তাহলে ডিম পেড়ে দেখাও
BF: ইয়ার্কির একটা সীমা আছে
GF: আর মিথ্যা কথা বলারও একটা সীমা আছে


২৭
কখনও কারো মন ভাঙবেন না, হাড় ভাঙ্গুন।
কারণ হাড় ২০৬ টি আর মন ১ টি।


২৮
স্ত্রীঃ আজকে একটা স্বপ্ন দেখলাম,
তুমি একটি নেকলেস গিফট করেছ।
এর মানে জানো?
স্বামীঃ তুমি আজকে রাতে জানতে পারবে।
(স্বামী বাইরে গেল আর একটি বই কিনে আনল ” The Meaning of Dreams”)


২৯
জাতির কাছে প্রশ্ন,
ছেলেরা ছ্যাকা খায়লে বিড়ি খাই।
মেয়েরা ছ্যাকা খাইলে কি খায়???


৩০
বাঁশ বাগানের মাথার উপর চাঁদ উঠছে ঐ
লাইফে শুধু বাঁশটা খাইলাম চাঁদটা গেলো কই


৩১
ম্যাডামঃ বাচ্চারা বলতাে মাছ কথা বলতে পারেনা কেন?
সন্টুঃ ম্যাডাম আমি যদি আপনার মাথাটা
জলের মধ্যেধরিনআপনি পারবেন কথা বলতে?


৩২
বাবাঃ রেজাল্ট এর কি খবর?
ছেলেঃ একটা সু-সংবাদ আরেকটা দুঃসংবাদ।
বাবাঃ সু-সংবাদ বলো।
ছেলেঃ আমি পরীক্ষায় পাস হইছি।
বাবাঃ আর দুঃসংবাদ বলো।
ছেলেঃ সু-সংবাদ টা মিথ্যা।


৩৩
ওয়েটারঃ আপনি সমুসার ভিতরের সব খেলেন
কিন্তু বাইরের সব অংশ খেলেন না কেন?
বল্টুঃ কারণ ডক্টর বলেছেন,
বাইরের খাবার না খেতে।


৩৪
স্ত্রীঃ তুমি সবসময় আমার ছবি তোমার কাছে রাখ কেন?
স্বামীঃ যখন আমি কোন সমস্যায় থাকি
যত অসম্ভবই হোক না কেন,
তোমার ছবি দেখা মাত্রই সমস্যা দূরে চলে যায়।
স্ত্রীঃ দেখেছ, আমি কত পাওয়ারফুল।
স্বামীঃ আমি তোমার ছবি দেখি আর ভাবি
তোমার থেকে বড় সমস্যা আর কি হতে পারে।


৩৫
শ্বাশুড়িঃ ২-২ টা চোখ আছে,
চাল থেকে পাথর আলাদা করতে পারোনা?
বউঃ ৩২ টা দাঁত আছে,
দাঁতগুলা ব্যাবহার করলেই হয়।


৩৬
শিক্ষকঃ অক্সিজেনের আবিষ্কার হয়েছে ১৭৭৩ সালে।
ছাত্রঃ বাঁচলাম, ঐ সময়ের আগে জন্ম নিলে মরে যেতাম।


৩৭
স্বামীঃ জলদি ঘরের সব দামি জিনিসপত্র
লুকিয়ে ফেলো! আমার কিছু বন্ধু বাড়ি আসছে।
স্ত্রীঃ কেন? তোমার বন্ধুরা কি সেসব চুরি করবে?
স্বামীঃ না। নিজেদের জিনিস চিনে ফেলবে। 😆😆😆


৩৮
(বল্টু গেল দোকানে আয়না কিনতে)
বল্টুঃ এই আয়নার গ্যারান্টি কি?
দোকানদারঃ এই আয়না ১০০ তলা বিল্ডিং এর ছাদ
থেকে ফেলা হলে ৯৯ তলা পর্যন্ত এর কিছুই হবে না।


৩৯
প্রশ্নঃ গুগল ছেলে নাকি মেয়ে?
উত্তরঃ মেয়ে, কারণ গুগল বাক্য শেষ করার আগেই সাজেশন দিতে শুরু করে। 😂😂😂


৪০
ছেলেঃ আমি আমার আমিকে, তোমাকে উপহার দিতে চাই।
মেয়েঃ দুঃখিত, আমি সস্তা উপহার গ্রহণ করি না।


৪১
স্ত্রীঃ আজকে স্বপ্নে দেখলাম
তুমি আমাকে একটি ডায়মন্ড রিং কিনে দিয়েছ।
স্বামীঃ আমিও স্বপ্নে দেখলাম
বিলটা তোমার বাবা পে করেছিল।


৪২
সদ্য ইঞ্জিনিয়ারিং পাস করা স্টুডেন্ট গেল ভাইভা দিতে
এবং ভাইভা শেষে অফিসার তাকে জিজ্ঞেস করল,
অফিসারঃ মাসিক, কি রকম সেলারি তুমি এক্সপেক্ট করছ?
স্টুডেন্টঃ ১২০০০০ টাকা।
তবে ডিপেন্ড করে আপনি কি রকম প্যাকেজ অফার করছেন।
অফিসারঃ আসলে, প্যাকেজে থাকছে
৫ সপ্তাহের ছুটি, ১৪ টি পেইড হলিডে, ফুল মেডিক্যাল এবং ডেন্টাল সাপোর্ট।
এবং সাথে থাকছে ৫০% সেলারির অবসর ফান্ড।
স্টুডেন্টঃ আপনি কি আমার সাথে মজা করছেন?
অফিসারঃ শুরু কে করেছিল?


৪৩
আমার এক বন্ধু বলল খাবারের মধ্যে
একমাত্র পেয়াজ নাকি কাদায়।
আমি তখন তার মুখে নারিকেল ছুড়ে মারলাম,
এখনও কাদতেছে!


৪৪
শিক্ষকঃ কোন বইটি তোমার জীবনে
সব থকে বেশি সহযোগিতা করেছে।
ছাত্রঃ আমার বাবার চেক বই।


৪৫
একটা মেয়ে রাস্তায় অজ্ঞান হয়ে পড়ে ছিল
কাছে গিয়ে দেখি হারামজাদি tik tok করতাছে 😡😡😡


৪৬
মা তার ছেলে কে বলতেছে,
ঐদিকে দেখ একটা ছেলে কত নম্র এবং ভদ্র,
কোন খারাপ ব্যবহার করে না।
ছেলে তার মাকে বলছে,
মনে হয় ছেলেটার মা-বাবা ভালো।


৪৭
তুমি তখনই বুঝবা যে তুমি মোটা হচ্ছ,
যখন তুমি তোমার বন্ধুদের সামনে বলবা
“মোটা হয়ে যাচ্ছি”
আর তারা তোমাকে সংশোধন করায় না।


৪৮
নন্টেঃ তর আজ ডক্টরের কাছে
যাওয়ার কথা ছিল না?
ফন্টেঃ আজ যাওয়া হবে না,
শরীরটা ভীষণ খারাপ।


৪৯
কিডনাপারঃ তোর বউ আমার কাছে আছে,
একটি আঙ্গুল কেটে পাঠালাম প্রমাণ স্বরূপ।
স্বামীঃ বিশ্বাস করিনা,
মাথা কেটে পাঠাও।


৫০
(স্বামী তার স্ত্রী এর সাথে ঝগড়া করার পর
বাসা থেকে বেরিয়ে পরে
তারপর রাতে ফোনে মেসেজ করে)
স্বামীঃ আজকে খাবারে কি আছে?
স্ত্রীঃ বিষ!!!!
স্বামীঃ আমার আসতে দেরী হবে।
তুমি খেয়ে নাও তাহলে 🤣🤣🤣


৫১
স্ত্রীঃ ডক্টর, আমার স্বামী ঘুমের ঘোড়ে কথা বলে।
ডক্টরঃ আপনার স্বামী যখন জেগে থাকে,
তখন তাকে কথা বলার সুযোগ করে দিন আগে।


৫২
শিক্ষকঃ ১ গ্রাম কতটুকু?
ছাত্রঃ ঐটা নির্ভর করে আপনি কি চাচ্ছেন।


৫৩
নন্টেঃ আজকে রাতে চাঁদ এর আলো দেখা যাচ্ছে না
অনেক অন্ধকার হয়ে আছে, তাই না?
ফন্টেঃ জানি না, আমিতো কিছুই দেখতে পারছিনা।


৫৪
(বল্টু এবং তার গার্লফ্রেন্ড রেস্টুরেন্টে খাওয়া শেষে)
বল্টুঃ আমি শেষ বারের মত বলতেছি,
আমাকে বিয়ে করবা কিনা?
গার্লফ্রেন্ডঃ না।
বল্টুঃ আচ্ছা, ওয়েটার!!!!!
খাবারের বিল আলাদা হবে।


৫৫
শিক্ষকঃ বল, এনার্জি কাকে বলে?
ছাত্রঃ সম্পূর্ণ মনে নাই কিন্তু শেষের দিকে মনে আছে।
শিক্ষকঃ আচ্ছা তাহলে শেষের অংশ বল।
ছাত্রঃ তাকেই এনার্জি বলে।


৫৬
ডক্টরঃ আপনার স্বামীর অনেক ঘুম এবং বিশ্রামের প্রয়োজন।
এই নিন ঘুমের ঔষধ।
স্ত্রীঃ কখন খাওয়াব?
ডক্টরঃ এগুলো আপনার জন্য।


৫৭
শিক্ষক বলল, যে আমার প্রশ্নের সঠিক উত্তর দিতে পারবে
সে আগে ক্লাস থেকে বের হতে পারবে।
তা দেখে নন্টে তার ব্যাগ বাইরে ছুড়ে ফেলে দিল।
শিক্ষক চিৎকার করে উঠল, এই ব্যাগ কার?
নন্টে বলল, আমার।
এইবার ক্লাসের বাইরে যেতে দিন।


৫৮
আজকের সময়ের সবচেয়ে বড় ত্যাগ হচ্ছে নিজের মোবাইলের চার্জার খুলে আরেক জনের মোবাইল চার্জে দেয়া।


৫৯
শিক্ষকঃ বল্টু ট্রেন বানান করত।
বল্টুঃ ট্রে...ট্রে...ট্রে...
শিক্ষকঃ মানে কি?
এতক্ষণ লাগতেছে কেন?
বল্টুঃ স্যার! ট্রেন অনেক বড়,
এই কারনেই বেশি সময় নিচ্ছে।


৬০
যদি চাও মানুষ তোমাকে মনে রাখুক,
তাহলে টাকা ধার করা শুরু কর।


৬১
আজকের দিনে বাবা-মায়ের দুইটি দুশ্চিন্তা
তাদের ছেলে মেয়েদের নিয়ে।
প্রথমটি হচ্ছে তাদের ছেলে কি ডাউনলোড করছে
আর অন্যটি, তাদের মেয়ে কি আপলোড করছে।


৬২
(নন্টে এক রুটি নিজে খাইতেছিল আরেক রুটি মুরগীকে খাওয়াচ্ছিল)
ফন্টেঃ তুই কি করছিস?
নন্টেঃ মুরগীর সাথে রুটি খাইতেছি।


৬৩
প্রশ্নঃ একটি কম্পিউটার খাবারের জন্য কি খায়?
উত্তরঃ মাইক্রো চিপস।


৬৪
এখনকার বিচ্ছেদ প্রেমিক-প্রেমিকার হয়
আর সাজা ভোগ করে প্রোফাইল পিকচার আর স্ট্যাটাস।


৬৫
নন্টেঃ বুঝলি ফন্টে, আজকে তোর জন্য ২ টা সংবাদ আছে।
একটা দুঃখের আরেকটা সুখের।
কোনটা আগে শুনবি?
ফন্টেঃ দুঃখের টা বল।
নন্টেঃ দুঃখের সংবাদ হচ্ছে,
আজকে তোর কোন সু-সংবাদ নাই।
আর সুখের সংবাদ হচ্ছে
আজকে তোর কোন দুঃখের সংবাদ নাই।


৬৬
বল্টু ডায়েরী লিখছে,
আজকে আমার বোনের সন্তান হবে,
কিন্তু বুঝতে পারছি না
মামা হব নাকি মামী।


৬৭
পুলিশঃ আগামীকাল তোর ফাঁসি।
আসামীঃ কিন্তু স্যার আমার ফাঁসি তাে আরােও
একমাস পরে হওয়ার কথা ছিল।
পুলিশঃ জেলার সাহেব বললাে
তুই নাকি ওনার গ্রামের লােক
তোর কাজটা আগে
করে দিতে হবে। 😂🤣😂


শেষ কথা

এই ছিল ৬৭+ বাংলা ফানি স্ট্যাটাস নিয়ে আমাদের আজকের পোস্ট। এই স্ট্যাটাসগুলো আপনি আপনার ফেসবুকে কিংবা WhatsApp একাউন্টে শেয়ার করতে পারেন। এমনকি আপনি এসএমএস হিসেবেও এই বাংলা ফানি এসএমএস গুলো শেয়ার কীতে পারেন।

Post a Comment

Previous Post Next Post